ফেসবুকে ব্লক খোলার নিয়ম ২০২৩ | FB ব্লক লিস্ট দেখার নিয়ম

মোবাইলের সিমে যেমন কাউকে ব্ল্যাকলিস্ট করা যায়। ঠিক একই ভাবে Facebook, Twitter, Instagram এবং WhatsApp ইত্যাদি সোশ্যাল মিডিয়া প্লাটফর্মে কাউকে ব্লক করা যায়।

তবে মোবাইলের ব্ল্যাকলিস্ট নাম্বার ব্ল্যাকলিস্ট থেকে করার পদ্ধতি আমাদের জানা থাকে। কিন্তু সমস্যা হচ্ছে ফেসবুকে ব্লক খোলার নিয়ম আমাদের জানা নেই। তাই আমি আজকে এই বিষয়টি বেছে নিয়েছি।

আজকে আমরা এই বিষয়ের উপর গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা করব। ক্রমানুসারে একের পর এক পদক্ষেপ গুলো আপনাদের বুঝিয়ে দেব। তাছাড়াও একবার ব্লক খোলার পর আমাদেরকে কি সমস্যা হয়।

সে ব্যক্তিকে আবার কিভাবে ব্লক করব এ বিষয়েও আলোচনা করা হবে। সাথে আপনাদের কিছু গুরুত্বপূর্ণ টিপস দিয়ে দেব। আশা করছি ধৈর্য সহকারে সম্পূর্ণ পোস্ট ভালোভাবে পড়বেন।

ফেসবুকে শেয়ার অপশন চালু করার নিয়ম

ফেসবুকে ব্লক খোলার নিয়ম ২০২৪ | ফেসবুকে ব্লক লিস্ট দেখার নিয়ম

আমরা অনেকে আছি যারা ফেসবুক লাইট ব্যবহার করি। আবার অনেকে আসল ফেসবুক অ্যাপটি ব্যবহার করি। কেউ কেউ আবার কম্পিউটার দিয়ে ফেসবুক ব্যবহার করেন। কিন্তু সকল জায়গায় ব্লক খোলার নিয়ম একই।

তাই আমার দেওয়া নিজের পদ্ধতি গুলো অনুসরণ করুন এবং ফেসবুক, ফেসবুক লাইট ও কম্পিউটার সব জায়গাতে আপনি ব্লক খুলতে পারবেন। তো চলুন ব্লক খোলার নিয়মগুলো শিখে নেয়া যাক।

  1. সর্বপ্রথম নিজের ফেসবুক অ্যাপ এ লগইন করুন।
  2. লগইন করার পর সবার উপরে আপনি তিন ডট করা একটি অপশন দেখতে পারবেন।
  3. সেই থ্রি ডট এ ক্লিক করুন।
  4. এরপর স্ক্রল করে একটু নিচের দিকে আসুন।
  5. Settings & Privacy‘ নামক অপশন দেখতে পারবেন। তার উপর ক্লিক করুন।
  6. এরপর আপনার সামনে ‘Settings‘ অপশন টি দেখা যাবে তার উপর ক্লিক করুন।
  7. একটি নতুন পৃষ্ঠা চলে আসবে। সেখানে একটু স্ক্রল করে নিচের দিকে আসুন।
  8. ‘ব্লকিং’Blocking’ অপশনটি দেখতে পারবেন তার উপর ক্লিক করুন।
  9. এখন আপনার সামনে দেখা যাবে আপনি কাদেরকে ব্লক করে রেখেছেন।
  10. তার পাশেই ‘আনব্লক ‘UNBLOCK’ লেখা থাকবে। UNBLOCk এ ক্লিক করার পর আপনি তাদের ব্লক খুলতে পারবেন।
  11. আবার ফেসবুকে ব্লক লিস্ট দেখার নিয়ম এটিই।
  12. ভালোভাবে নিয়মগুলো বুঝতে নিচের ছবিগুলো অনুসূরণ করুন।
ফেসবুকে ব্লক খোলার নিয়ম ২০২৩

ফেসবুকে ব্লক খোলার নিয়ম ২০২৩

ফেসবুকে ব্লক খোলার নিয়ম ২০২৩

ফেসবুকে ব্লক খোলার নিয়ম ২০২৩

সহজভাবে মোবাইল নাম্বার দিয়ে ফেসবুক আইডি বের করা শিখে নিন

কিন্তু আপনাকে কেউ ব্লক করলে কীভাবে বুঝবেন?

ফেসবুকে ব্লক দুই ধরনের হয়ে থাকে। একটি হচ্ছে সরাসরি ফেসবুকে ব্লক। অপরটি হচ্ছে মেসেঞ্জার ব্লক। কেউ আপনাকে মেসেঞ্জারে ব্লক করলে আপনি তাকে মেসেজ পাঠাতে পারবেন। কিন্তু সে এই মেসেজটি পাবে না।

অর্থাৎ, আপনি মেসেজ ঠিক পাঠাবেন কিন্তু সেটি তার কাছে Deliver হবে না। তবে, সে আপনাকে কোন মেসেজ পাঠাতে পারবে না। কেননা সে আপনাকে মেসেঞ্জারে ব্লক করে রেখেছে।

কিন্তু আপনি বুঝতে পারবেন না যে, সে আপনাকে মেসেঞ্জারে ব্লক করে রেখেছে। কারণ আপনি তো তাকে মেসেজ পাঠাতে পারছেন। এটি বুঝার জন্য আপনাকে সে ব্যক্তির প্রোফাইলে যেতে হবে।

সে যদি আপনার ফ্রেন্ডলিস্টে অ্যাড থাকে তাহলে সেখানে ফ্রেন্ডস নামের অপশন দেখা যাবে। ফ্রেন্ডস নামের অপশনের পাশে এই মেসেজ করার অপশন থাকে।

সেখানে যদি আপনি কোন মেসেজ অপশন না পান তাহলে বুঝে নিয়েন যে সে ব্যক্তিটি আপনাকে মেসেঞ্জারে ব্লক করে রেখেছে। এটি গেল মেসেঞ্জারে ব্লক বোঝার উপায়।

কিন্তু আপনাকে কেউ ব্লক করলে কীভাবে বুঝবেন?

ফেসবুকে ব্লক করলে কি হয়?

অপর ব্লকটি হচ্ছে সরাসরি ফেসবুকে ব্লক করা। এটি সবচেয়ে জটিল একটি প্রক্রিয়া। কেউ যদি আপনাকে ফেসবুকে ব্লক করে। অথবা, আপনি যদি কাউকে ফেসবুকে ব্লক করেন। তাহলে সে ব্যক্তিটি আপনার ফ্রেন্ড লিস্ট থেকে ডিলিট হয়ে যাবে।

বলতে পারেন নিজে নিজে আনফ্রেন্ড হয়ে যাবে। এমন অবস্থায় মেসেজ দেওয়া তো দূরের কথা সে আপনার প্রোফাইল দেখতে পারবে না। আর না আপনি তার প্রোফাইল দেখতে পারবেন।

অর্থাৎ, কেউ ফেসবুকে ব্লক করলে সে তাকে মেসেজ তো পাঠাতে পারবে না বরং তার প্রোফাইলেও ঢুকতে পারবে না। তার সাথে সাথে ফ্রেন্ডলিস্ট থেকেও আনফ্রেন্ড হয়ে যাবে। পরবর্তীতে যদি ব্লক খোলা হয় তবুও সে আপনার ফ্রেন্ডলিস্টে অ্যাড থাকবে না।

এর জন্য আপনাদেরকে আবার অ্যাড ফ্রেন্ড করে ফ্রেন্ড লিস্টে অ্যাড হতে হবে। আশা করছি বুঝতে পেরেছেন আপনি কিভাবে বুঝবেন কেউ আপনাকে মেসেঞ্জারে ব্লক করেছে কি না। অথবা, ফেসবুকে ব্লক করেছে কি না।

ফেসবুকে ফলোয়ার দেখার উপায়

ফেসবুকে কাউকে ব্লক করতে 48 ঘন্টা অপেক্ষা করতে হয় কেন?

ফেসবুকে কাউকে ব্লক করতে ৪৮ ঘন্টা অপেক্ষা করাটা ফেসবুক পলিসির অন্তর্ভুক্ত। বিষয়টি আপনাদের একটু বুঝিয়ে বলি। ধরুন আপনি কোন ব্যক্তির ফেসবুক আইডি বা কারো প্রোফাইলকে ব্লক করেছেন।

এরপর কোন কারনে বা প্রয়োজনে আপনি তার ব্লক সরিয়ে নিয়েছেন। অর্থাৎ ব্লক খুলে দিয়েছেন যাকে আমরা আনব্লক বলি। তবে জরুরী ভিত্তিতে বা কোনো কারণে আপনি সে ব্যক্তিকে আবার ব্লক করতে চাচ্ছেন।

হতে পারে আপনার কোন ব্যক্তিগত সমস্যা কারণে আপনি তাকে আবার ব্লক করতে চাচ্ছেন। ঠিক এই সময়ে আপনাকে ফেসবুক বলবে যে ৪৮ ঘন্টা অপেক্ষা করতে হবে।

অর্থাৎ, কোন ব্লক করা ব্যক্তিকে আনব্লক করার ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে আপনি তাকে আবার ব্লক করতে পারবেন না। একবার আনব্লক করার 48 ঘন্টা বা দুইদিন পর আপনি সেই ব্যক্তির প্রোফাইলকে আবার ব্লক করতে পারবেন।

এর আগে এটি সম্ভব নয়। এবার হয়তো বিষয়টি আপনি বুঝতে পেরেছেন। কাউকে আনব্লক করলে ৪৮ ঘন্টা পর্যন্ত তাকে পুনরায় ব্লক করতে পারবেন না এটাই হচ্ছে প্রধান বিষয়। যেটি ফেসবুক পলিসির অন্তর্ভুক্ত।

উপসংহার

আজকের পোস্ট ফেসবুকের উপর ভিত্তি করে করা হয়েছে। একজন নতুন ফেসবুক ব্যবহারকারীর জন্য যে সমস্যাটি বেশি দেখা দেয়। সেটি হচ্ছে সে ফেসবুকে ব্লক খোলার নিয়ম সম্পর্কে জানেনা। তাই আমার আজকে মূল আলোচ্য বিষয় এটিই ছিল।

এছাড়াও আমি ফেসবুকে ব্লক লিস্ট দেখার নিয়ম জানিয়ে দিয়েছি। আসলে ব্লক খোলার নিয়ম এবং ব্লকলিস্ট দেখার নিয়ম একই। আপনি যখন ব্লক লিস্ট ওপেন করবেন তখনই কাউকে আনব্লক করতে পারবেন বা ব্লক খুলতে পারবেন।

জিমেইল একাউন্ট রিকভারের নিয়ম জেনে নিন

কাজেই এই পোস্টের মাধ্যমে আপনি দুইটি জিনিস সহজে শিখে গিয়েছেন। নিজের ব্লাকলিস্ট দেখতে দেখা এবং সেখান থেকে ইচ্ছা অনুযায়ী যে কারোর ব্লক খুলতে পারা। সম্পূর্ণ পোস্ট ভালোভাবে পড়লে আপনি এ বিষয়টি পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে বুঝে যাবেন।

এছাড়াও কিছু টিপস ও প্রশ্নের উত্তর দিয়েছি যেগুলো আপনার উপকারে আসবে বলে আশা করছি। কোন কিছু জিজ্ঞেস করার থাকলে নিচে কমেন্ট বক্সে জিজ্ঞেস করুন। ধন্যবাদ।

By AzimAdmin

Hi, I am a professional Blogger & SEO Expert. I am working on this field since 2019. I've a huge experience in my profession. I also worked on so many projects and websites.

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *