রিভাইভ লোশন এর উপকারিতা - রিভাইভ লোশনের দাম ও ব্যবহার

রিভাইভ লোশন Square Toiletries LTD. কোম্পানির একটি প্রোডাক্ট। যা বাংলাদেশে অতি সহজলভ্য একটি প্রসাধনী। রিভাইভ লোশন মূলত একটি বডি লোশন। আজকে এই লোশনটি নিয়ে বিস্তারিতভাবে আলোচনা করা হবে। বিশেষ করে রিভাইভ লোশন এর উপকারিতা বা কার্যকারিতা, লোশনটির দাম ও ব্যবহার করার নিয়ম সম্পর্কে জানানো হবে।

যারা রিভাইভ লোশন ব্যবহার করছেন বা করতে চাচ্ছেন তাদের সন্তুষ্টির জন্য লোশনটির শুরু হতে শেষ পর্যন্ত সকল গুরুত্বপূর্ণ তথ্য তুলে ধরা হবে। এছাড়াও কিছু সাধারণ প্রশ্নগুলোর উত্তর পেয়ে যাবেন। আপনারা নির্দ্বিধায় লোশনটি ব্যবহার করুন। বাকি তথ্য জানতে নিচের সম্পূর্ণ আলোচনা পড়ুন।

Read More : খাজানা ক্রিম এর উপকারিতা, এর দাম, Side Effects এবং রিভিউ

রিভাইভ লোশন এর উপকারিতা

রিভাইভ লোশন শীত ও গরম উভয় আবহাওয়ায় ব্যবহার করা যাবে। অনেক বডি লোশন হয়ে থাকে যেগুলো শুধুমাত্র শীতকালে ব্যবহারের জন্য তৈরী করা হয়। তবে এই লোশনটির কার্যকারিতা বা উপকারিতা বিবেচনায় আনলে উভয় আবহাওয়ায় এটি ব্যবহারকারীকে যথেষ্ট সুবিধা দেয়। আসুন জেনে নিন রিভাইভ লোশন এর কার্যকারিতা বা উপকারিতাসমূহ –

  1. ত্বক মশ্চুরাইজ রাখে।
  2. রোদের প্রখর তাপ ও ক্ষতিকারক রশ্মি হতে ত্বককে সুরক্ষা দেয়।
  3. এর মধ্যে ব্যবহার করা গ্লিসারিন নামক উপাদান ডেমেজ ত্বককে পুনরায় উজ্জীবিত করতে সক্ষম।
  4. লোশনে থাকা ভিটামিন-ই এসিটেটভিটামিন-বি৩ ত্বকের কোষকে শক্তি প্রদান করে ও রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করতে সহায়তা করে। যার ফলে সহজে কোনো ফাঙ্গাস বা ইনফেকশন ত্বকের কোনো ক্ষতি সাধন করতে পারে না।
  5. শীতকালে ত্বককে মসৃন, হাইড্রেটেডমশ্চুরাইজ করতে অনেকটাই কার্যকরী।

রিভাইভ লোশন ব্যবহারের নিয়ম

রিভাইভ লোশন ব্যবহারবিধি অনেক সহজ। আহামরি তেমন কোনো যত্ন নিতে হয় না। লোশনটি ত্বকে অনেক তাড়াতাড়ি শোষিত হতে পারে বলে পানি দ্বারা লোশনটি তাড়াতাড়ি ধুয়ে পরে যাওয়ার তেমন কোনো ভয় থাকে না। এতে লোশনটি দীর্ঘক্ষণ ত্বকে থেকে নিজের কার্যকারিতা দেখতে পারে। যাইহোক রিভাইভ লোশন ব্যবহারের নিয়ম জেনে নিন –

  • প্রতিদিন সম্পূর্ণ শরীরে ব্যবহার করতে হবে।
  • গোসল করার পর ব্যবহার করলে আরো উত্তম।
  • গলায়, শরীরে এবং মুখে যেসব স্থানে রোদ বেশি লাগে। সেসব স্থানে লোশনটি লাগিয়ে রোদে বের হতে হবে।
  • প্রতিবার হাত-মুখ ধোয়ার পরে লোশনটি ব্যবহার করুন।
  • আর বাইরে যাওয়ার আগে লোশনটি লাগিয়ে নিন।

এই সামান্য কিছু নিয়ম মেনে লোশনটি ব্যবহার করলে এর কার্যকারিতা কিছু সময়ের মধ্যেই পরিলক্ষিত হবে। তাছাড়া আপনি চাইলে নিজের দৈনিক শরীর চর্চায় (Skin Care) লোশনটি শামিল করে নিতে পারেন। শীত ও গরম উভয় আবহাওয়ায় ব্যবহারের জন্য দারুন লোশন এটি।

Read More : কোজিক কোলাজেন বডি লোশন এর পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া ও ব্যবহার

রিভাইভ লোশন কেমন

এই পর্যন্ত যারাই লোশনটি ব্যবহার করেছেন সকলেই লোশনটি নিয়ে ইতিবাচক রিভিউ প্রদান করেছেন। বিশেষ করে নারীরা এই লোশন ব্যবহার করে অনেকটাই সন্তুষ্ট। আমার বাড়িতেও লোশনটি ব্যবহার করা হয় এবং এর কার্যকারিতা আসলেই লক্ষিত হওয়ায় আমার বাড়ির প্রসাধনীর তালিকায় প্রথম কাতারে লোশনটি শামিল রয়েছে।

রিভাইভ লোশনে থাকা উপাদান : এই লোশনে মিনারেল অয়েল, সিটাইল অ্যালকোহল, ডাইমেথিকন এন্ড সাইক্লপেন্টাসিলোক্সেন, ভিটামিন-ই অ্যাসিটেট, গ্লিসারিন, হাইড্রক্সিইথাইল সেলুলোজ, কার্বোপল, ভিটামিন বি৩, ডিএমডিএমএএইচ, পারফিউম, একুয়া এই সকল উপাদান বিদ্যমান।

এই উপাদানগুলো কোনোভাবেই ত্বকের কোনোরকম ক্ষতিসাধন করে না। তাছাড়া লোশনে তেমন কোনো ক্ষতিকারণ কেমিক্যাল ব্যবহার করা হয়নি। কাজেই লোশনটি ত্বকের উপকার করে। তাই এই লোশনটি এত ভালো। এছাড়াও লোশনটি ব্যবহারকারীদের রিভিউগুলোর স্ক্রিনশট নিচে যুক্ত করে দিবো।

রিভাইভ লোশন কেমন এর রিভিউ

রিভাইভ লোশন কেমন এর রিভিউ

রিভাইভ লোশন কেমন এর রিভিউ

রিভাইভ লোশন মুখে ব্যবহার করা যাবে কি?

যেহেতু রিভাইভ লোশন একটি বডি লোশন তাই এটি মুখে ব্যবহার না করাই উত্তম। লোশনটি প্রধানত আপনার ত্বক মশ্চুরাইজ করতে কার্যকরী। তবে অনেকসময় ব্যাবহারকারিরা রিভাইভ লোশন মুখে ব্যবহার করেছেন। তবে এতে তাদের কোনো ক্ষতি হয়নি। আপনার কাছে যদি কোনো ফেস লোশন থেকে থাকে তবে সেটিই মুখে ব্যবহার করুন।

আর যদি ফেস ক্রিম বা লোশন না থেকে থাকে তবে রিভাইভ লোশন মুখে ব্যবহার করা যাবে এতে কোনো ক্ষতি নেই। মুখের সেনসিটিভ ত্বক ক্ষতি করার মতো কোনো উপাদান এই লোশনে পাওয়া যায় না। বরং অনেক ভালো ভালো উপাদান এই লোশনে বিদ্যমান। যা শরীরসহ মুখের ত্বকের জন্যেও উপকারী।

Read More : পা ফাটা দূর করার ক্রিম বাংলাদেশ – স্কয়ার কোম্পানির ক্রিম

রিভাইভ লোশন দাম

লোশনটি তৈরিকৃত কোম্পানি (Square Toiletries LTD.)’র অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে এই লোশনটির মূল্য লেখা আছ। সেখানে ২০০ মিলি প্যাকে রিভাইভ লোশন এর দাম ২৪০/- টাকা। তবে স্থান ভেদে এর দাম কিছুটা ভিন্ন হতে পারে। অপরদিকে কসমেটিক দোকানগুলোতে আপনি এই মূল্যের কিছুটা কম/বেশি দামে রিভাইভ লোশন ক্রয় করতে পারবেন।

উপসংহার

আজকের পোস্টে রিভাইভ লোশন এর উপকারিতা সম্পর্কে আলোচনা করা হয়েছে। তাছাড়া রিভাইভ লোশন এর দাম, রিভিউ ও ব্যবহার করার নিয়ম সম্পর্কে বিস্তারিতভাবে জানানো হয়েছে। সাথে কিছু প্রশ্নের জবাব দেয়া হয়েছে। যেটি এই ক্রিমের ব্যবহারকারীরা করে থাকেন।

আশা করছি পোস্টটি আপনার কাছে উপকারী মনে হয়েছে। তাই পোস্টটি শেয়ার করে সকলের কাছে পৌঁছে দিন। কোনো কিছু বলার ও জানার থাকলে কমেন্ট করুন। শতভাগ উত্তর দেওয়া হবে। ধন্যবাদ।

By AzimAdmin

Hi, I am a professional Blogger & SEO Expert. I am working on this field since 2019. I've a huge experience in my profession. I also worked on so many projects and websites.

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *