রিয়েলমি C35 দাম কত ২০২৩ | রিয়েলমি C35 বাংলাদেশ প্রাইস

আপনি কি রিয়েলমি C35 মোবাইল কিনতে চাচ্ছেন? অথচ সমস্যা হচ্ছে যে রিয়েলমি C35 দাম কত সেটি আপনার জানা নেই। তাহলে চিন্তার কোনো বিষয় নয় আমার আজকের আলোচ্য বিষয় এটির উপরে। আজকে রিয়েলমি C35 বাংলাদেশ প্রাইস কত আছে সেটি জানিয়ে দিবো।

রিয়েলমি মোবাইল তৈরির একটি বিখ্যাত কোম্পানি। এটি বাংলাদেশে একটি উন্নত ব্র্যান্ড হিসেবে নিজেকে উপস্থাপন করতে সক্ষম হয়েছে। সাথে তাদের তৈরী করা সামগ্রীগুলো বাংলাদেশের মানুষদের মাঝে অনেক জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে।

বাংলাদেশের স্মার্টফোন ব্যাবহারকারিরা মোবাইল ক্রয় করার ক্ষেত্রে অন্যান্য ব্রান্ডের মতো রিয়েলমি ব্রান্ডকেও অনেকটা প্রাধান্য দিয়ে থাকে। বাংলাদেশে মধ্যম বাজেটের মধ্যে রিয়েলমি ব্রান্ডের অনেক কয়েকটি সুন্দর সুন্দর মোবাইল থাকার কারণে ক্রেতাগণ এই ব্রান্ডের প্রতি আকৃষ্ট হন।

আমি অনালাইনে বিভিন্ন মাধ্যম এবং রিয়েলমির অফিসিয়াল ওয়েবসাইট থেকে রিয়েলমি C35 দাম আপনাদের মাঝে তুলে ধরব। তবে আসল কথা হচ্ছে যে ইলেক্ট্রনিক্স প্রোডাক্টের দাম সব সময় বাড়ে-করে।

এজন্যই কোনো প্রোডাক্টের বর্তমান আসল দাম জানার একমাত্র মাধ্যম হচ্ছে প্রোডাক্টের অফিসিয়াল শোরুম। তাই আপনার আশেপাশে রিয়েলমির কোনো শোরুম থাকলে সেখানে যোগাযোগ করে রিয়েলমি C35 দাম কত এটি জেনে নিতে পারেন। তবে আমাদের দেয়া দামও সঠিক আছে।

Read : স্যামসাং A13 বাংলাদেশ প্রাইস | স্যামসাং A13 দাম কত ২০২৪

রিয়েলমি C35 দাম কত?

বাংলাদেশে রিয়েলমি C35 মোবাইলটি দুটি ফরম্যাটে পাওয়া যায়। একটি ফরমেট হচ্ছে ৪ জিবি র‍্যাম এবং ১২৮ জিবি রম। অপর ফরমেট হচ্ছে ৬ জিবি র‍্যাম এবং ১২৮ জিবি রম। উভয় ফরমেট এর দাম আলাদা আলাদা।

আপনারা জানেন যে, একটি মোবাইলের ক্ষেত্রে তার র‍্যাম এর গুরুত্বটা কত। বিশেষ করে মার্কেটে কোনো মোবাইলের র‍্যাম এর উপর ভিত্তি করে মোবাইলটির দাম নির্ধারণ করা হয়। যে মোবাইলের র‍্যাম যত কম তার দামও তত কম হয়ে থাকে।

কাজেই ৪-১২৮ জিবি ফরম্যাট ওয়ালা রিয়েলমি C35 মোবাইল দাম একটু কম হবে। অপরদিকে ছয় ৬-১২৮ জিবি ফরম্যাট ওয়ালা রিয়েলমি C35 মডেলের মোবাইল দামে একটু বেশি হবে।

তবে আপনার সামনে উভয় ফরমেটের দাম উপস্থাপন করা হবে। আপনার যেটি স্বাচ্ছন্দ্যবোধ হয় আপনি সেই ফরমেটের মোবাইলটি কিনতে পারেন।

মডেলর‍্যামরমদাম
Realme C354 GB128 GB16,999/-
Realme C356 GB128 GB18,999/-

রিয়েলমি C35 বাংলাদেশ প্রাইস এর তুলনায় এর স্পেসিফিকেশন ও পারফরম্যান্স

রিয়েলমি C35 মোবাইলটির যাবতীয় তথ্যাবলী, স্পেসিফিকেশন এবং পারফরম্যান্স সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করা হলো। সর্বপ্রথম বলতে চাই মোবাইলটি ২ টি রঙে পাওয়া যায় – উজ্জ্বল কালো এবং ঊজ্জ্বল সবুজ রং। আর এই মোবাইলটি ২০২২ সালের ১৪ ফেব্রুয়ারী মার্কেটে রিলিজ করা হয়।

মোবাইলটি 2G, 3G এবং 4G নেটওয়ার্ক সম্পন্ন। সাথে ডুয়াল সিম পদ্ধতি রয়েছে। মোবাইলটির ওজন ১৮৯ গ্রাম মাত্র। যেটি হাতের মধ্যে অতি সহজে হোল্ড করতে পারবেন এবং স্ক্রিনে গোরিলা গ্লাস স্কিন সুরক্ষা রয়েছে।

রিয়েলমি C35 মোবাইলটির বডি প্লাস্টিকের তৈরী। সম্পূর্ণ মোবাইলের সাইজ হচ্ছে ৬.৬ ইঞ্চি। ডিসপ্লে রেজুলেশন Full HD+ 1080 x 2401 পিক্সেলস ৪০১ পিপিআই আর মধ্যে। এই মোবাইলের স্ক্রিন মাল্টিটাচ সম্পন্ন।

মাল্টিটাচ অর্থ হচ্ছে, আপনি সে ডিভাইসেএকসাথে একাধিকবার টাচ অ্যাকশন করতে পারবেন। অনেক সময় দেখা যায় একসাথে একাধিক আঙ্গুল ব্যবহার করলে ডিভাইসের টাচ কাজ করে না। কিন্তু এই মোবাইলে এই সম্যসাটি পাবেন না। এখানে মাল্টিটাচ ফিচার রয়েছে।

Read More : 12 হাজার টাকার মোবাইল vivo | সেরা ৪টি vivo সেটের তালিকা ২০২৪

ব্যাটারি

রিয়েলমি C35 মোবাইলটির ব্যাটারি হচ্ছে লিথিয়াম পলিমারের তৈরী। যার কার্যকারিতা 5000 mAh সম্পন্ন। সাথে একটি ১৮ ওয়াটের দ্রুত চার্জার দেওয়া হয়েছে।

মোবাইলটি আনবক্সিং করার সময় এর বক্সের ভিতরে চার্জারটি পেয়ে যাবেন। যেটি হবে স্যামসাংয়ের অফিসিয়াল চার্জার এবং রিয়েলমি C35 মোবাইলের আসল চার্জার।

পারফরম্যান্স

রিয়েলমি C35 এর পারফরম্যান্স নিয়ে কথা বললে, মোবাইলটি হচ্ছে এন্ড্রোইড ১১ ভার্সন সাপোর্টেড। যেটি অনেকটা আপডেটেড। ইউনিসক টাইগার টি৬১৬ এর চিপসেট ব্যবহার করা হয়েছে। সাথে ভালো মানের অক্টা কোর প্রসেসর আছে।

মালি-জি৫৭ এর জিপিইউ। মোবাইলে রয়েছে দুই ফরম্যাটে – ৪ জিবি এবং ৬ জিবি। ৪ জিবি র‍্যামের সাথে ১২৮ জিবি রমের কম্বিনেশন করা আছে। অপরদিকে ৬ জিবি র‍্যামের সাথে ১২৮ জিবি স্টোরেজের কম্বিনেশন করা আছে।

ক্যামেরা

এখন কথা বলবো মোবাইলটির ক্যামেরা সম্বন্ধে –

পিছনের ক্যামেরা :

ক্যামেরাত্রিপল ক্যামেরা
রেজুলেশন50+5+0.3 Megapixels
ভিডিও কোয়ালিটিসম্পূর্ণ HD 1080p

Read More : ২০ টি ভিভো মোবাইলের দামের তালিকা

সামনের ক্যামেরা :

ক্যামেরাসিঙ্গেল ক্যামেরা
রেজুলেশন8 Megapixels
ভিডিও কোয়ালিটিHD 7200p

এই ছিল স্যামসাং রিয়েলমি C35 মোবাইলের সম্পূর্ণ স্পেসিফিকেশন, বর্ণনা ও তথ্য। আসলে গ্রাহকগণ নতুন মোবাইল ক্রয় করার আগে মোবাইলের ফিচার, ক্যামেরা, র‍্যাম ও পারফরম্যান্স সম্পর্কে জানতে আগ্রহ প্রকাশ করেন।

যেটি আসলেই জানা উচিত। কোনো মোবাইল ক্রয় করার পূর্বে এটি একটি বুদ্ধিমত্তার কাজ। নিজের করা বাজেটের মধ্যে যে মোবাইলটি ভালো স্পেসিফিকেশন সম্পন্ন হয় ক্রেতাগণ সেটিই কিনতে স্বাচ্ছন্দবোধ করেন।

তাই আমি বর্ণনাসহ এত বিস্তারিত আলোচনা করেছি। এই আলোচনা দেখে রিয়েলমি C35 মোবাইলটি আপনার জন্য কতটা ঠিক সেটি বিবেচনা করুন।

রিয়েলমি C35 মোবাইলের সুবিধা এবং অসুবিধা

Pros

  • পিছনের সাইডে অনেক ভালোমানের ত্রিপল ক্যামেরা
  • উন্নতমানের চিপসেট এবং জিপিইউ
  • গোরিলা গ্লাস স্ক্রিন সুরক্ষা আছে
  • ফিঙারপ্রিন্ট সেন্সর ও ফেস আনলক সিস্টেম আছে
  • অত্যান্ত আকর্ষণীয় ডিজাইন

Cons

  • প্লাষ্টিক বডি
  • সামনের ক্যামেরা আরো উন্নত করা যেত
  • ওয়াটার প্রুফ বা পানি প্রতিরোধী নয়

Read More : গাজী পাম্প ১ ঘোড়া দাম ২০২৪

Conclusion

আমার আজকের আলোচনার মূল বিষয় ছিল রিয়েলমি ব্রান্ডের একটি নতুন মডেলের মোবাইলকে ঘিরে। তাই আমি আপনাদের কাছে রিয়েলমি C35 দাম কত সেটি উপস্থাপন করেছি।

শুধু দাম বা প্রাইস নয় বরং মোবাইলটির সম্পূর্ণ খুঁটিনাটি তুলে ধরেছি। এই মোবাইলের সুবিধা এবং অসুবিধা বা ভালো এবং খারাপ দিকগুলো নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে। । আর মোবাইল ক্রয় করার পর আপনাকে যেন কোনো অসুবিধা না হয় সে জন্য মোবাইলের স্পেসিফিকশন ভালোভাবে পড়ে নিবেন।

বাকি পোস্টটি ভালো লাগলে অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন। কোনো কিছু জানার বা বলার থাকলে নিচে মন্তব্য করুন।

রিয়েলমি C35 দাম কত ২০২৪?

রিয়েলমি C35 দুটি ফরম্যাটে বাংলাদেশে পাওয়া যায়। এজন্য এই মোবাইলের দাম ২টি। একদিকে ৪/১২৮ জিবি ফরম্যাটের দাম হচ্ছে ১৬,৯৯৯/- টাকা। অপরদিকে ৬/১২৮ জিবি ফরম্যাটের দাম হচ্ছে ১৮,৯৯৯/- টাকা।

রিয়েলমি C35 সেরা ফোন?

মধ্যম দামের মোবাইলগুলোর সাথে তুলনা করলে মোটামোটি বলা যায় যে, রিয়েলমি C35 সেরা ফোন। কারণ এটি আপনাকে ত্রিপল ক্যামেরা দিচ্ছে যার মূল ক্যামেরা ৫০ পিক্সেলস সম্পন্ন। অপরদিকে উচ্চ স্টোরেজ ও অত্যান্ত আকর্ষণীয় ডিজাইন আছে। সব মিলিয়ে ফোনটি একটি সেরা ফোন।

Realme C35 5g সমর্থন করে?

না, Realme C35 5g সমর্থন করে না। Realme C35 শুধুমাত্র 2G, 3G এবং 4G সমর্থন করে। সাথে ডুয়াল সিম লাগিয়ে চালাতে পারবেন।

Realme C55 ফোনটা কেমন?

Realme C55 ফোনটা মোটামোটি অনেক ভালো মানের একটি ফোন। বিশেষ করে এর স্পেসিফিকেশন এর দিকে লক্ষ্য করলে এই দামের মধ্যে বাকি ফোনগুলোর তুলনায় এই ফোনটি অনেক বেশি ফিচার দিয়ে সাথে। এই ফোন উন্নত মানের প্রসেসর, চিপসেট এবং জিপিইউ আছে।

By AzimAdmin

Hi, I am a professional Blogger & SEO Expert. I am working on this field since 2019. I've a huge experience in my profession. I also worked on so many projects and websites.

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *