12 হাজার টাকার মোবাইল vivo | সেরা ৪টি vivo সেটের তালিকা ২০২৩

প্রত্যেকটি জিনিস কেনার আগে আমরা তার বাজেট করে থাকি। বর্তমান সময়ে মোবাইল কিনার ক্ষেত্রেও আমরা একই পদ্ধতি অনুসরণ করি। তাছাড়া বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই দেখা যায়, আমরা মধ্যম বাজেটে মোবাইল কিনার ক্ষেত্রে ১২ হাজার টাকার বাজেট নির্ধারণ করে থাকি।

এটি খারাপ বাজেট নয়। বরং এই বাজেটের মধ্যে অনেক ভালো ভালো মোবাইল মার্কেটে পাওয়া যায়। একইভাবে আমাদের আজকের আলোচনার বিষয় এটি। আজকে আলোচনা করব 12 হাজার টাকার মোবাইল vivo কোম্পানির।

বর্তমান সময় যদি বিবেচনা করি তাহলে মার্কেটে ভিভোর চারটি নতুন মডেলের মোবাইল এই বাজেটের মধ্যে পেতে পারেন। যে চারটি vivo সেটের তালিকা দিব সবকটি ভিভোর নতুন মডেলের মোবাইল। এগুলো Y সিরিজের অন্তর্ভুক্ত।

এগুলো দেখতে যতটা আকর্ষণীয় তাদের পারফরম্যান্সও তত ভালো। এই মোবাইল গুলো আপনি ভিভোর অফিশিয়াল ওয়েবসাইট থেকে অনলাইন অর্ডার করতে পারেন। অথবা আপনার পার্শ্ববর্তী ভিভোর কোন শোরুম থেকে গিয়ে নিতে পারেন।

Read More : ভিভো 4 64 দাম কত ২০২৪? ২০ টি ভিভো মোবাইলের দামের তালিকা

12 হাজার টাকার মোবাইল vivo কোম্পানির

নিচে আমি ভিভো ব্রান্ডের নতুন মডেলের মোবাইলগুলোর মধ্য থেকে ৪টি মোবাইলের লিস্ট আপনাদের সামনে তুলে ধরবো। তার সাথে এই ৪টি মোবাইলের সম্পূর্ণ স্পেসিফিকশন ও যাবতীয় তথ্যাবলী বিস্তারিতভাবে আলোচনা করা হবে।

মোবাইলের নামর‍্যামরমদাম
Vivo Y02A3 GB32 GB11,999/-
Vivo Y022 GB32 GB10,999/-
Vivo Y012 GB32 GB11,599/-
Vivo Y113 GB32 GB11,990/-

উপরে আমি নতুন নতুন মডেলের ৪টি মোবাইলের নাম, রম এবং দাম জানিয়ে দিয়েছি। এগুলোর দামের দিকে লক্ষ্য করুন। সবগুলোর দাম ১২ হাজারের কম। আপনি সহজেই ১২ হাজার টাকার মধ্যে এই মোবাইলগুলো পেয়ে যাবে।

সবগুলোই 12 হাজার টাকার মোবাইল vivo কোম্পানির। কথা হচ্ছে যে কোন মোবাইলটি কিনবেন? আপনার বাজেট ১২ হাজার, আপনি কিনবেন যেকোনো একটি মোবাইল। কিন্তু কোনটি কিনবেন এটি বাছাই করার জন্য আপনাকে আগে মোবাইলগুলোর স্পেসিফিকশন সম্পর্কে জানতে হবে।

সবগুলো মোবাইলের স্পেসিফিকশন জানার পর যেকোনো একটিকে বেছে নিবেন। অর্থাৎ যে মোবাইলটির তথ্যগুলো আপনার কাছে গ্রহণযোগ্য মনে হবে সেটিই আপনি কিনবেন।

Read More : বাংলাদেশে Vivo Y21 এর দাম | বিবু Y21 এর RAM & ROM রিভিউসহ

Vivo Y02A মোবাইলের সম্পূর্ণ স্পেসিফিকেশন এবং গুরুত্বপূর্ণ তথ্য

  • রং : সর্বপ্রথম কথা বলব মোবাইলটির রং নিয়ে। এ মোবাইলের রং হচ্ছে অর্কিড ব্লু এবং কসমিক গ্রে।
  • RAM & ROM : ভিভো Y02A মোবাইলে ৩ জিবি এবং ৩২ জিবি আছে।
  • স্ক্রিন এবং সাইজ : মোবাইলটির স্ক্রিন গ্লাসের তৈরি। আর এটি প্লাস্টিক বডির একটি মোবাইল। যার ডিসপ্লের সাইজ ৬.৫১ ইঞ্চি
  • রেজুলেশন : এর রেজুলেশন নিয়ে কথা বলা যাক। এটি এইচডি প্লাস 1600 x 720 পিক্সেলস HD+ রেজুলেশন সম্পন্ন একটি ফোন।
  • টাচ এবং ওজন : মোবাইলটি একটি মাল্টি টাচ মোবাইল। মোবাইলটির নেট ওজন ১৮৬ গ্রাম। তেমন একটা ভারী নয় এবং হাতের মধ্যে ভালোভাবেই হোল্ড করতে পারবেন।
  • ব্যাটারি : Vivo Y02A মোবাইলে লিথিয়াম আয়ন ৫০০০mAh ব্যাটারি সংযোগ আছে। সাথে আপনাকে ১০ ওয়াটের একটি চার্জার দেয়া হবে। যেটি এই ব্যাটারিকে দ্রুত চার্জ করতে সক্ষম।
  • পারফরম্যান্স : Vivo Y02A মোবাইলের পারফরম্যান্স মোটামোটি অনেক ভালো। মোবাইলটিতে অপারেটিং সিস্টেম এন্ড্রোইড ১২ ভার্সন রয়েছে।
  • সিকিউরিটি সেন্সরস : কোনো ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর নেই।

এখন কথা বলবো মোবাইলটির ক্যামেরা সম্বন্ধে –

পিছনের ক্যামেরা :

ক্যামেরাসিঙ্গেল ক্যামেরা
রেজুলেশন8 Megapixels
ভিডিও কোয়ালিটিসম্পূর্ণ HD 1080p

সামনের ক্যামেরা :

ক্যামেরাসিঙ্গেল ক্যামেরা
রেজুলেশন5 Megapixels
ভিডিও কোয়ালিটি*

Read More : বাংলাদেশে ভিভো Y20 দাম কত । এর RAM & ROM সম্পূর্ণ রিভিউসহ

Vivo Y02 মোবাইলের সম্পূর্ণ স্পেসিফিকেশন এবং গুরুত্বপূর্ণ তথ্য

  • রং : সর্বপ্রথম কথা বলব মোবাইলটির রং নিয়ে। এ মোবাইলের রং হচ্ছে অর্কিড ব্লু এবং কসমিক গ্রে
  • RAM & ROM : ভিভো Y02 মোবাইলে ২ জিবি এবং ৩২ জিবি আছে।
  • স্ক্রিন এবং সাইজ : মোবাইলটির স্ক্রিন গ্লাসের তৈরি। আর এটি প্লাস্টিক বডির একটি মোবাইল। যার ডিসপ্লের সাইজ ৬.৫১ ইঞ্চি
  • রেজুলেশন : এর রেজুলেশন নিয়ে কথা বলা যাক। এটি এইচডি প্লাস 1600 x 720 পিক্সেলস HD+ রেজুলেশন সম্পন্ন একটি ফোন।
  • টাচ এবং ওজন : মোবাইলটি একটি মাল্টি টাচ মোবাইল। মোবাইলটির নেট ওজন ১৮৬ গ্রাম। তেমন একটা ভারী নয় এবং হাতের মধ্যে ভালোভাবেই হোল্ড করতে পারবেন।
  • ব্যাটারি : Vivo Y02 মোবাইলে লিথিয়াম আয়ন ৫০০০mAh ব্যাটারি সংযোগ আছে। সাথে আপনাকে ১০ ওয়াটের একটি চার্জার দেয়া হবে। যেটি এই ব্যাটারিকে দ্রুত চার্জ করতে সক্ষম।
  • পারফরম্যান্স : Vivo Y02 মোবাইলের পারফরম্যান্স মোটামোটি অনেক ভালো। মোবাইলটিতে অপারেটিং সিস্টেম এন্ড্রোইড ১২ ভার্সন রয়েছে।
  • সিকিউরিটি সেন্সরস : কোনো ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর নেই।

এখন কথা বলবো মোবাইলটির ক্যামেরা সম্বন্ধে –

পিছনের ক্যামেরা :

ক্যামেরাসিঙ্গেল ক্যামেরা
রেজুলেশন8 Megapixels
ভিডিও কোয়ালিটিসম্পূর্ণ HD 1080p

সামনের ক্যামেরা :

ক্যামেরাসিঙ্গেল ক্যামেরা
রেজুলেশন5 Megapixels
ভিডিও কোয়ালিটি*

Read More : ওয়ালটন চার্জার ফ্যানের দাম ২০২৪-চার্জার ফ্যান কাজের পদ্ধতি

Vivo Y01 মোবাইলের সম্পূর্ণ স্পেসিফিকেশন এবং গুরুত্বপূর্ণ তথ্য

  • রং : সর্বপ্রথম কথা বলব মোবাইলটির রং নিয়ে। এ মোবাইলের রং হচ্ছে মার্জিত কালো এবং নীলকান্তমণি নীল
  • RAM & ROM : ভিভো Y01 মোবাইলে ২ জিবি এবং ৩২ জিবি আছে।
  • স্ক্রিন এবং সাইজ : মোবাইলটির স্ক্রিন গ্লাসের তৈরি। আর এটি প্লাস্টিক বডির একটি মোবাইল। যার ডিসপ্লের সাইজ ৬.৫১ ইঞ্চি
  • রেজুলেশন : এর রেজুলেশন নিয়ে কথা বলা যাক। এটি এইচডি প্লাস 1600 x 720 পিক্সেলস HD+ রেজুলেশন সম্পন্ন একটি ফোন।
  • টাচ এবং ওজন : মোবাইলটি একটি মাল্টি টাচ মোবাইল। মোবাইলটির নেট ওজন ১৭৮ গ্রাম। তেমন একটা ভারী নয় এবং হাতের মধ্যে ভালোভাবেই হোল্ড করতে পারবেন।
  • ব্যাটারি : Vivo Y01 মোবাইলে লিথিয়াম আয়ন ৫০০০mAh ব্যাটারি সংযোগ আছে।
  • পারফরম্যান্স : Vivo Y01 মোবাইলের পারফরম্যান্স মোটামোটি অনেক ভালো। মোবাইলটিতে অপারেটিং সিস্টেম এন্ড্রোইড ১১ ভার্সন রয়েছে।
  • সিকিউরিটি সেন্সরস : কোনো ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর নেই।

এখন কথা বলবো মোবাইলটির ক্যামেরা সম্বন্ধে –

পিছনের ক্যামেরা :

ক্যামেরাসিঙ্গেল ক্যামেরা
রেজুলেশন8 Megapixels
ভিডিও কোয়ালিটিসম্পূর্ণ HD 1080p

সামনের ক্যামেরা :

ক্যামেরাসিঙ্গেল ক্যামেরা
রেজুলেশন5 Megapixels
ভিডিও কোয়ালিটি*

Vivo Y11 মোবাইলের সম্পূর্ণ স্পেসিফিকেশন এবং গুরুত্বপূর্ণ তথ্য

  • রং : সর্বপ্রথম কথা বলব মোবাইলটির রং নিয়ে। এ মোবাইলের রং হচ্ছে মিনারেল ব্লু এবং অ্যাগেট রেড।
  • RAM & ROM : ভিভো Y11 মোবাইলে ৩ জিবি এবং ৩২ জিবি আছে।
  • স্ক্রিন এবং সাইজ : মোবাইলটির স্ক্রিন গ্লাসের তৈরি। আর এটি প্লাস্টিক বডির একটি মোবাইল। যার ডিসপ্লের সাইজ ৬.৩৫ ইঞ্চি
  • রেজুলেশন : এর রেজুলেশন নিয়ে কথা বলা যাক। এটি এইচডি প্লাস 720 x 1544 পিক্সেলস HD+ রেজুলেশন সম্পন্ন একটি ফোন।
  • টাচ এবং ওজন : মোবাইলটি একটি মাল্টি টাচ মোবাইল। মোবাইলটির নেট ওজন ১৯০.৫ গ্রাম। তেমন একটা ভারী নয় এবং হাতের মধ্যে ভালোভাবেই হোল্ড করতে পারবেন।
  • ব্যাটারি : Vivo Y11 মোবাইলে লিথিয়াম আয়ন ৫০০০mAh ব্যাটারি সংযোগ আছে।
  • পারফরম্যান্স : Vivo Y11 মোবাইলের পারফরম্যান্স মোটামোটি অনেক ভালো। মোবাইলটিতে অপারেটিং সিস্টেম এন্ড্রোইড ৯ ভার্সন রয়েছে।
  • সিকিউরিটি সেন্সরস : সিকিউরিটি সেন্সর হিসেবে রয়েছে ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর।

Read More : রিয়েলমি C35 দাম কত ২০২৪ | রিয়েলমি C35 বাংলাদেশ প্রাইস

এখন কথা বলবো মোবাইলটির ক্যামেরা সম্বন্ধে –

পিছনের ক্যামেরা :

ক্যামেরাডুয়াল ক্যামেরা
রেজুলেশন13+2 Megapixels
ভিডিও কোয়ালিটিসম্পূর্ণ HD 10800p

সামনের ক্যামেরা :

ক্যামেরাসিঙ্গেল ক্যামেরা
রেজুলেশন8 Megapixels
ভিডিও কোয়ালিটিসম্পূর্ণ HD 1080p

এই ৪টি মোবাইলের মধ্যে কোনটি ভালো? কোন মোবাইলটি কিনবেন?

উপরোক্ত আলোচনা করা চারটি মোবাইলের মধ্যে কোন মোবাইলটি কিনবেন? এটি কয়েকটি নির্দিষ্ট বিষয়ের উপর নির্ধারণ করে বিবেচনা করতে হবে। প্রথমত দেখতে হবে আপনি কি ডিজাইন বা মোবাইলের সৌন্দর্য দেখে মোবাইল কিনতে চাচ্ছেন?

তাহলে উপরের চারটি মোবাইলই দেখতে অনেক উত্তম ডিজাইনের। ভিভো কোম্পানি তাদের নতুন ফোনগুলো নতুন মডেলের নতুন ডিজাইনে প্রকাশ করে থাকে। তাই ডিজাইনের ব্যাপারে চারটি মোবাইলই অনেক ভালো।

এরপর আপনি যদি মোবাইলের র‍্যাম বা স্টোরেজ এর উপর ভিত্তি করে মোবাইল কিনতে চাচ্ছেন। তাহলে Vivo Y02 বা Vivo Y11 নিতে পারেন। এই দুটি মোবাইল ৩ জিবি র‍্যাম ৩২ জিবি স্টোরেজ সম্পন্ন। আরেকটি বিষয় হচ্ছে আমরা অনেকেই ক্যামেরার জন্য মোবাইল কিনে থাকি।

আপনি যদি ক্যামেরা বিবেচনা করে মোবাইল কিনতে চাচ্ছেন। তাহলে Vivo Y11 মোবাইলটি আপনার জন্য ভালো হবে। এতে পিছনের সাইডে রয়েছে ডুয়াল ক্যামেরা রেজুলেশন ১৩ + ২ পিক্সেলস।

অন্যদিকে বাকি তিন মোবাইলের পিছনের ক্যামেরায় রয়েছে ৮ মেগাপিক্সেলের সিঙ্গেল রেজুলেশন ক্যামেরা। যেটি Vivo Y11 তুলনায় কম। আপনি যদি দামের তুলনা করে মোবাইল কিনতে চাচ্ছেন। তাহলে আপনি vivo Y02 কিনতে পারেন একটি দাম ১০,৯৯৯/- টাকা পড়বে।

আর যদি সামগ্রিক দিক বিবেচনা করে আমার কাছে জিজ্ঞেস করেন যে কোন মোবাইল টি কেনা ভালো হবে। তাহলে আমি আপনাকে বলবো আপনি Vivo Y11 মোবাইলটি কিনুন।

এটি র‍্যামের দিক দিয়েও অনেক ভালো, ক্যামেরার দিক দিয়েও ভালো, মোবাইলের স্টোরেজও ৩২ জিবি এবং দামও ১২ হাজার টাকার মধ্যে। 12 হাজার টাকার মোবাইল vivo যেটি আপনার বাজেটের মধ্যে পড়ছে।

By AzimAdmin

Hi, I am a professional Blogger & SEO Expert. I am working on this field since 2019. I've a huge experience in my profession. I also worked on so many projects and websites.

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *